Navigation Menu+

Jesus Christ, the Rock in the coming storm (English/বাংলা)

Posted on 2 Aug, 2020 in Guds ord, Guds rike, Kärlek, Lidande, Profetia | 0 comments

The written sermon is first in English, and further down in Bengali. You can also listen to it in English or Bengali. 

এখানেপ্রচারটিপ্রথমেইংরেজীতেএবংনিচেবাংলায়রয়েছে।প্রচারটিএখানেআপনিইংরেজীএবংবাংলায়শুনতেপারবেন।

Jesus Christ, the Rock in the coming storm 

In this sermon I will speak about what I believe is about to come as Jesus is about to come back and how we, as believers in Jesus Christ, should prepare for what’s coming. I strongly believe that the Lord wants His people and Church to be ready and prepared and not sleeping, and that the Lord wants to tell us already now what’s coming, so we are in a state of preparedness, and not sleeping. 

In John chapter 14 Jesus says: do not let your hearts be troubled. Trust in God, trust in Me also. In My Father’s house are many rooms, if it were not so, I would have told you. I Am going there to prepare a place for you. And if I go and prepare a place for you, I will come back and take you to be with Me, that you also may be where I Am. 

These verses speak about the Coming of Jesus Christ back to this world, and Jesus is coming back soon. We see the beginning of the birth pains in the Corona virus, but more difficult things are ahead. 

First of all, as always when God has something to say about the future or reveals Himself to a man, God says: fear not! Do not be troubled! God is in full control. God knows what has been, what is now and what is to come. Jesus holds the future totally in His Hands. 

Jesus speaks about The rapture, when He will gather us, and I want you to know that there are various opinions about when the rapture comes. Some say before the great Tribulation, others in the middle of it, after three and a half years of testing, others say: no, also the believers in Christ have to go through all of it. I don’t know for sure, I have studied their biblical support and must say they all have some support. 

But the most important thing is: Be ready! Be ready to be raptured soon. But prepare also for the other option, to go through some testing of our faith in Christ. 

But strength is made perfect in weakness, and I believe that Faith will grow stronger in the hard times, because Jesus will pour out His Holy Spirit. Yes, seek more of it already now, but the harder it gets, the more Jesus will strengthen His own people. 

Isaiah 60 says: arise, shine, for your light has come and the glory of the Lord rises upon you. For behold, the darkness shall cover the earth and deep darkness the people, but the Lord will arise over you and His glory will be seen upon you. 

I believe that these verses speak also about what’s to come, and I believe that Jesus will glorify His Name. I believe that everyone will see more clearly who belongs to Christ, and Malachi says the same thing, a book of remembrance written for those who fear the Lord. And the Lord says that they will be Mine, and on that day I will make them my jewels and I will spare them as a man spares his own son. We can trust Jesus fully, and I believe that Jesus will give us both strength and spiritual blessings in the testing. 

If we are to stay all the way through the Tribulation, the Bible says that great spiritual confusion will come, and various Christ will be presented and finally the Antichrist will come. I believe that the Antichrist will come to power because of fear and chaos, and he will speak about peace, love and he will unite all religions and say that all religions have the same God. But Jesus said: I Am the Way, the Truth and the Life, no one comes to the Father except through Me. 

Today The pope travels all over the world and preaches that all religions lead to the same God and it’s very popular. I don’t judge the pope, but I recommend you to be careful with what the pope today is preaching and doing. I don’t know about previous popes, but this pope clearly moves outside of the Word of God, and in contradiction to it, and that is wrong. 

I Respect all religions, and I respect both the Catholic and Orthodox churches, and I believe that there are many true believers in Christ there. It’s Not my task to say who is saved or not, but as a servant of Christ it is my task to correct wrong preaching, in love and humility, and to say what the Word of God says, and it says that Christ is the only way to God and Heaven! Now, Can those who haven’t heard the gospel be saved? I don’t know, but I can leave that in the Faithful Hands of the Almighty God. But my mission is to preach the gospel and salvation through Jesus Christ. 

Jesus is coming soon, we all see that. Now, what will happen right before Jesus comes back? Many preachers today speak about a great end time revival, and an American preacher called Bill Johnson speaks about one billion people saved in an end time revival accompanied with miracles, , signs, wonders and great power. Ok, that sounds great, but what does the Word of God say? 

The disciples ask a specific question in Mathew 24: what will be the sign of Your Coming? The first thing Jesus says is: take heed that no one deceives you! And then Jesus speaks about persecution, earthquakes and rumours of war. But only once. But three times Jesus speaks about spiritual deception, false Christs and false prophets, showing great signs and wonders, leading many astray. But not with one single word, Jesus speaks about this great revival before He comes back. 

Didn’t Jesus know? Or did Jesus just forget? Ok, let’s see what the apostles say! 

In 1 Timothy 4 Paul says that the Spirit expressly says that in the latter times some will depart from the faith, giving heed to deceiving spirits and doctrines of demons. 

And in 2 Thessalonians Paul says: let no one deceive you by any means, for that that day, meaning the Coming of Christ, will not come unless the falling away comes first. And then he says that the falling away comes with all power, signs and lying wonders. Let’s stop and think. The description Paul gives of the falling away, is exactly the same as we heard about the end time revival. Can it be that the falling away will be mistaken as a great revival? All of the apostles seem to be totally unaware of this revival. 

But then you say: the Bible doesn’t speak about revivals! That’s true, but Jesus gets a direct question about what will happen in the end of time, wouldn’t He also mention A revival with one billion people saved? I just wonder…

Then What saves us from the falling away? Paul gives the answer: love for the truth! That is first of all to love Jesus and the Word of God, if someone preaches outside or contrary to the Word, you say: that might sound positive, but it’s not according to the Word. But it also means that you hold on to what is true here on earth, that you stick to facts. 

If someone says today: do you know that these preachers have been involved in grave soaking, where you go to a grave of a dead man of God to get his anointing, which is strictly forbidden in the Bible and from the occult, many say: I don’t believe that! Then I say: But there are many pictures on the Internet! They say: It’s fake news! They are successful and some people want to sabotage it! But then I say: But how come there are no pictures and no rumours about Billy Graham or David Wilkerson doing this? They were even more successful, and active also recently? And How come these preachers have confessed that they used it as a joke among them? Many say: I still don’t believe that, and quite often with anger. 

Many Christians act like this in Sweden today, they don’t seek the truth. If you have such a heart, not loving the truth, you may be deceived. 

In John 14:15 and 23 Jesus says: if you love Me, keep My commandments, and then if anyone loves Me, he will keep My Word, and My Father will love him and we will come to him and make Our home in him. A sign of love for Jesus is that we keep His Commandments and treasure His Word. But we do it because Jesus first loved us, and because we love Him, so we do it out of love, of free will and with joy, not as the heavy yoke and burden of the Law of Moses. And when we do that, Jesus, the Holy Spirit and even God the Father will love us, abide in us, and that is something amazing, and when troubles come, God Himself will protect us, give us strength we don’t have, wisdom, guidance and even spiritual blessings in the storm. 

And in the storm we need to remember where our peace and strength is found. Jesus says “peace I leave to you, My peace I give to you. Psalms 119:165 says: great peace have those who love Your Law, and nothing causes them to stumble. When we love Jesus and keep His Commandments also in the storm, He will be our resting place, and we will not stumble. 

And our peace is based upon what Jesus Christ did for us on Calvary and in the fact that Jesus is already now ruling and reigning in Heaven and has everything under full control. In John 14:30 Jesus says: for the ruler of this world is coming, and he has nothing in Me. the Swedish version says: against Me he can do nothing. Jesus Christ is the Lord God Almighty, no one can stop Him from what He wants to do, and no one can touch His beloved children and servants before the day He calls them home to Heaven. Therefore we can be at rest. Yes, there can be moments of fear, but we can remind ourselves of these words and regain our faith, strength and the peace of Christ can rest upon us. Remember not to give in to fear. Yes, we are humans, we can feel afraid sometimes, but don’t let fear guide your heart and decisions. 

But God will allow a time of testing for mankind in the last days. But God is Faithful. Revelations 3:7 says: these things says He who is Holy, He who is true, He who has the key of David, He who opens and no one shuts, and shuts and no one can open. I know your works. See I have set before you an open door and no one can shut it, for you have a little strength, have kept My word and not denied My Name. Because you have kept My command to persevere, I also will keep you from the hour of trial which shall come upon the whole world. 

There is a time of trial coming upon the world, and these verses say either that we will not be here, or that Jesus will keep us, protect us in the trial. Personally I am somewhat inclined to believe that the latter is true, Jesus will keep us, though I am not sure. But an open door is placed before us, and no one can shut it, and even if we have only a little strength, that is not a problem for the Lord, as long as we stay faithful to Christ, keep His word, don’t deny His Name and persevere, and then Jesus will give us His strength and the power of the Holy Spirit, and that is a resource which is abundant. 

And then comes the promise. He who overcomes, I will make a pillar in the Temple of My God, I shall write on him the Name of My God and the Name of the city of My God, the new Jerusalem, which comes down from Heaven. We have been given a divine, amazing promise and all we have to do is hold on to Christ. Hold fast what you have, that no one may take your crown. 

But we need to prepare for what’s coming. I served for 15 years in the Swedish Special Forces and the training was extremely tough. We could walk for a whole night without sleeping a single second, carrying rucksacks weighing 100 to 120 pounds, or 50-60 kilograms, and it could be rainy, wet, little food and so on. And many people broke down and had to leave the Unit. We said: he who is prepared will survive. Those who said in the beginning of the training: I am strong, this will be no problem for me, I don’t have to prepare so much, they often didn’t make it. Those who said: I understand that this training will be hard so I will prepare physically and mentally, they made it. 

Those Christians who believe they are very strong and don’t prepare, I believe will have problems, but if you prepare in prayer and reading the Word of God, you will stand in what’s coming. 

Then what is to come? We have seen beginning of the Great Tribulation with the Corona virus, but I believe that more is to come. I don’t know when, but maybe things will begin to shake already in September and November, maybe starting in the United States. USA might face more Corona and more riots, more fires and moving almost to a civil war. 

The last three years the Lord has given me maybe 10-15 dreams of a Russian military attack on Sweden, and other Christians have seen the same thing. Other prophecies confirm this and say that there is a conflict coming between NATO against Russia and China, and the West will loose and almost collapse. It seems unthinkable if you look at the combined military strength of USA, Great Britain, France, Germany. Only USA alone has twice the military budget of Russia and China together. The US Armed Forces are much stronger than both Russia’s and China’s combined, but still they will loose because God will not fight for them. 

But the Bible clearly shows us that numbers do not impress on the Lord. If the Lord fights against you, no number of tanks and fighters will defend you, but if the Lord fights for you, one tank brigade and a squadron of fighters will be enough to give you the victory. 

This is not easy for me to say, but the judgement of God is about to come upon North America, Western Europe and also my beloved country Sweden. I served my country for 15 years in the Swedish Special Forces, and I still love my country but now I fight for it in prayer. But if we don’t turn back to Christ, this will come, and it might start already in November. Other people have heard the year 2022, so I don’t know when. But if we don’t repent, this might come. It’s very, very sad, and I believe that Jesus is also sad. Jesus loves Sweden, Jesus loves Western Europe, Jesus loves USA. God has blessed these countries so much because of our love for Jesus, our willingness to evangelize the rest of the world, and because of our fear of God, but today it’s almost totally gone, only a few faithful left. 

But now the good news. there is a Rock that is firm that we can hold on to and trust for strength and protection, it’s Jesus Christ who is Faithful and True. Isaiah says in the Swedish version: therefore says the Lord God: behold, I lay in Zion a stone for foundation, a tried stone, a sure foundation. Whoever believes in it does not have to flee. 

We who believe in Jesus Christ, we don’t have to run or flee. Yes, sometimes we must flee persecution, also Paul did that, but we don’t run around, we don’t have to act hastily, we are still victorious in Christ. Jesus tells in Matthew about those who had built their house on the Rock, and that is to build your faith and your life upon the Words of Christ. The storm, the rain and the wind came, but it could not move the house. We are in Christ and Jesus Christ is in us. Jesus has placed us on the Rock, on the Cornerstone, and that stone is Jesus Christ Himself, the Lord God Almighty. 

Psalms 91 says: he who dwells in the secret place of the Most High shall abide under the shadow of the Almighty. I will say of the Lord: He is my refuge and my fortress. We serve God Almighty, and we are totally safe and secure in Christ. There will soon be only one safe place on earth, and that is in the Arms of Jesus, but that place will be safe, totally safe. 

But I believe that we need The power of the Holy Spirit, and Jesus will give it to us. Acts says: but you shall receive power when the Holy Spirit has come upon you, and you shall be witnesses to Me in Jerusalem, and in all Judea and Samaria, and to the end of the world. 

The Holy Spirit gives us guidance, strength, love, joy and peace, but the Holy Spirit also makes us bold as lions. 

There is a film that I love called “The Bible”. In one scene, taken from the Book of Acts, Peter and John has just recently been baptized in the Holy Spirit and healed a man lame from birth. The High Priest takes them to him, forces them to sit on their knees and says to them: I forbid you to speak in that Name again! And you should see the look on the face of Peter. He starts to smile, he looks calmly straight ahead, and his face is shining with joy and victory, and he says calmly: it is the truth. It’s our duty to speak it! Then the High Priest is angered and threatens them: you WILL be silent or you will be silenced, that means he is saying they will kill them. The guards lead them away to leave them room and John shouts boldly: we are not afraid of death! 

Remember, these are the same disciples who just a few days ago denied their beloved Master, they ran away and hid in a room, afraid of death and to show they belonged to Jesus Christ. But when the Holy Spirit came upon them, they were totally transformed. If we think that we are strong in ourselves and say, like Peter: though everyone else denies You, I will never deny You, then we will fall, as he did. But if we come to Jesus in prayer, in humility and weakness, and we say: I am weak, I am not bold, but I know that You, Jesus, are strong and that You are bold as a Lion, because You are the Lion of Judah, so please, Jesus, give me of Your Holy Spirit! Jesus, give me Your strength, fill me with Your love, make me bold as a the first apostles, and I believe that Jesus will do it, to glorify His Name. 

And remember that Romans say that in all these things we are more than conquerors through Him who loved us. Jesus Christ has already won the victory on the cross, and He gives us part of that victory and His Divine Glory by grace and only by grace. And nothing can separate us from the love of Jesus Christ. 

And the Bible tells us exactly how this is going to end. Revelations 19 says in short: now I saw the Heaven opened and behold, a white horse, and He who sat on him was called Faithful and True. He was clothed in a rob dipped in blood and His Name is called the Word of God. And the armies of Heaven, clothed in white linen, followed Him on horses. And He has on His robe and on His thigh a Name written: King of kings and Lord of lords. And then Jesus will defeat all His enemies in a second. That is how all this will end. 

Finally, we have beloved brothers in Christ in Pakistan, India and other countries that have to give their lives for Christ, and that can happen to us too. We must be aware of that. But in Heaven no one will say to Christ: Jesus, why did you let me leave life on earth when I was only forty years old? You could have given me at least 20 more years! No, you will praise God and say: thank You Jesus for what You did for me on Calvary, and thank You for bringing me to this wonderful place! I don’t ever want to go back to earth! 

And you won’t have to! In Heaven you will stay forever! We need to have that perspective when we face trial and suffering here on earth. Remember that an Eternity in Heaven awaits you and that Jesus Christ is coming back soon, in Glory and Power, and you will share His victory and glory forever. That hope will make you strong and Romans 5 says: now hope does not disappoint, because the love of God has been poured out in our hearts by the Holy Spirit who was given to us. Amen. 

যীশু খ্রিস্ট, আসছে ঝড়ের মধ্যে শিলা হয়ে

এই প্রচারটি আমি যা বিশ্বাস করি যে যীশু যেমন ফিরে আসবেন এবং যীশু খ্রীষ্টের প্রতি বিশ্বাসী হিসাবে, কীভাবে আসার জন্য প্রস্তুতি নেওয়া উচিত সে সম্পর্কে আমি যা বলতে চাই  আমি দৃড় ভাবে বিশ্বাস করি যে, প্রভু চান তাঁর লোক এবং চার্চ প্রস্তুত এবং প্রস্তুত হোক এবং ঘুমোবেন না, এবং প্রভু আমাদের কাছে ইতিমধ্যে এখনই যা বলতে আসছে তা আমাদের বলতে চান, তাই আমরা প্রস্তুতি অবস্থায় রয়েছি, এবং ঘুমোচ্ছি না।

যোহন ১৪ অধ্যায়ে যীশু বলেছেন: আপনার হৃদয়কে উদ্রেক করবেন না। ঈশ্বরের উপর ভরসা করুন, আমার উপরেও ভরসা করুন। আমার বাবার বাড়িতে অনেক কক্ষ রয়েছে, যদি তা না হয় তবে আমি আপনাকে জানতাম। আমি সেখানে আপনার জন্য একটি জায়গা প্রস্তুত করতে যাচ্ছি। আমি যদি গিয়ে আপনার জন্য জায়গা প্রস্তুত করি তবে আমি ফিরে আসব এবং তোমাকে আমার সাথে রাখব, যাতে আপনিও সেখানে থাকতে পারেন।

এই আয়াতগুলি যীশু খ্রীষ্টের এই পৃথিবীতে ফিরে আসার কথা বলে এবং যীশু শীঘ্রই ফিরে আসবেন। আমরা করোনার ভাইরাসে জন্মের যন্ত্রণার সূচনা দেখতে পাই তবে আরও কঠিন বিষয়গুলি সামনে।

প্রথমত, সর্বদা হিসাবে যখন ঈশ্বরের ভবিষ্যতের বিষয়ে কিছু বলার থাকে বা কোনও ব্যক্তির কাছে নিজেকে প্রকাশ করে, তখন ঈশ্বর বলেছেন: ভয় করো না! ঝামেলা করবেন না! ঈশ্বরের হাতে সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আছেন।ঈশ্বর জানেন যে কি হয়েছে, এখন কী এবং কী আগত। যিশু ভবিষ্যতকে পুরোপুরি তাঁর হাতে রাখেন।

যীশু আধ্যাত্মিক সম্পর্কে বলছেন, যখন তিনি আমাদের জড়ো করবেন, এবং আমি আপনাকে জানাতে চাই যে পরমানন্দ সম্পর্কে বিভিন্ন মতামত রয়েছে। কেউ কেউ মহাক্লেশের আগে বলে, অন্যরা এর মাঝখানে, সাড়ে তিন বছর পরীক্ষার পরে, অন্যরা বলে: না, খ্রিস্টের বিশ্বাসীরাও এর মধ্য দিয়ে যেতে হবে। আমি নিশ্চিতভাবে জানি না, আমি তাদের বাইবেলের সমর্থন নিয়ে অধ্যয়ন করেছি এবং অবশ্যই তাদের সকলের কিছুটা সমর্থন রয়েছে তা অবশ্যই বলব।

তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি: প্রস্তুত থাকুন! শীঘ্রই পরমানন্দ হতে প্রস্তুত থাকুন। কিন্তু অন্যান্য বিকল্পের জন্যও প্রস্তুত হন, খ্রিস্টের প্রতি আমাদের বিশ্বাসের কিছু পরীক্ষা চালিয়ে যেতে।

তবে শক্তি দুর্বলতায় নিখুঁত হয় এবং আমি বিশ্বাস করি যে কঠিন সময়ে বিশ্বাস আরও দৃ stronger় হবে, কারণ যীশু তাঁর পবিত্র আত্মা .েলে দেবেন। হ্যাঁ, ইতিমধ্যে এখনই এটির আরও বেশি সন্ধান করুন, তবে যত তাড়াতাড়ি পাবে ততই যিশু তাঁর নিজের লোকদের আরও শক্তিশালী করবেন।

যিশাইয় 60 বলেছেন: উঠুন, জ্বলুন, কারণ আপনার আলো এসে গেছে এবং প্রভুর মহিমা আপনার উপরে উঠে আসে। কারণ দেখ, অন্ধকার পৃথিবী এবং গভীর অন্ধকারকে coverেকে দেবে, কিন্তু প্রভু তোমাদের উপরে উঠবেন এবং তাঁর মহিমা তোমাদের উপরে দেখা যাবে।

আমি বিশ্বাস করি যে এই আয়াগুলি কী আসবে সে সম্পর্কেও কথা বলে এবং আমি বিশ্বাস করি যে যীশু তাঁর নামকে মহিমান্বিত করবেন। আমি বিশ্বাস করি যে প্রত্যেকে খ্রীষ্টের অন্তর্গতভাবে আরও স্পষ্টভাবে দেখতে পাবে, এবং মালাচি একই কথা বলেছেন, যারা প্রভুকে ভয় করে তাদের জন্য স্মরণার্থের একটি বই লেখা হয়। এবং প্রভু বলেছেন যে তারা আমার হবে, এবং সেদিন আমি তাদের আমার গয়নাগুলি করব এবং একজন মানুষ তার নিজের পুত্রকে বাঁচানোর মতো আমি তাদের বাঁচাব। আমরা যিশুকে পুরোপুরি বিশ্বাস করতে পারি এবং আমি বিশ্বাস করি যে যিশু পরীক্ষায় আমাদের শক্তি এবং আধ্যাত্মিক আশীর্বাদ উভয়ই দেবেন।

আমরা যদি দুর্দশাগুলির মধ্য দিয়ে পুরো পথেই থাকতে পারি, বাইবেল বলে যে মহা আধ্যাত্মিক বিভ্রান্তি আসবে, এবং বিভিন্ন খ্রিস্টকে উপস্থাপিত করা হবে এবং শেষ পর্যন্ত খ্রীষ্টশত্রু আসবে। আমি বিশ্বাস করি যে ভয় ও বিশৃঙ্খলার কারণে খ্রীষ্টশত্রু ক্ষমতায় আসবে, এবং সে শান্তি, ভালবাসার কথা বলবে এবং তিনি সকল ধর্মকে এক করে বলবেন যে সমস্ত ধর্মেরই ঈশ্বর আছেন। কিন্তু যীশু বলেছিলেন: আমি পথ, সত্য ও জীবন, আমার দ্বারা ছাড়া পিতার কাছে কেউ আসে না।

আজ পোপ সারা বিশ্ব জুড়ে ভ্রমণ করে এবং প্রচার করে যে সমস্ত ধর্ম একই ঈশ্বরের দিকে পরিচালিত করে এবং এটি খুব জনপ্রিয়। আমি পোপের বিচার করি না, তবে আমি আপনাকে পোপ আজ কী প্রচার করছে এবং কী করছে সে সম্পর্কে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছি। আমি পূর্ববর্তী পোপ সম্পর্কে জানি না, তবে এই পোপটি স্পষ্টভাবে ঈশ্বরের বাক্যের বাইরে চলে গেছে এবং এর বিপরীতে রয়েছে এবং এটি ভুল।

আমি সমস্ত ধর্মকে সম্মান করি এবং আমি ক্যাথলিক এবং গোঁড়া উভয় গীর্জাকেই সম্মান করি এবং আমি বিশ্বাস করি যে খ্রিস্টে সেখানে অনেক সত্য বিশ্বাসী আছেন। কে উদ্ধার পেয়েছে বা না তা বলা আমার কাজ নয়, তবে খ্রীষ্টের দাস হয়ে ভুল প্রচারকে, ভালবাসা ও নম্রতার সাথে সংশোধন করা এবং ঈশ্বরের বাক্য যা বলেছে তা বলা আমার কাজ, এবং বলে যে খ্রিস্টই একমাত্র ঈশ্বর এবং আকাশের পথে! এখন, যারা সুসমাচার শোনেনি তাদের কি বাঁচানো যেতে পারে? আমি জানি না, তবে আমি সর্বশক্তিমান ঈশ্বরের বিশ্বস্ত হাতে রেখে যেতে পারি। তবে আমার লক্ষ্য হ’ল যীশু খ্রীষ্টের মাধ্যমে সুসমাচার ও উদ্ধার প্রচার করা।

যীশু শীঘ্রই আসছেন, আমরা সকলেই তা দেখতে পাচ্ছি। এখন, যিশু ফিরে আসার ঠিক আগে কী হবে? আজ অনেক প্রচারক একটি দুর্দান্ত সময়কালীন পুনরুজ্জীবনের কথা বলেছেন, এবং বিল জনসন নামে পরিচিত আমেরিকান প্রচারক অলৌকিক চিহ্ন, লক্ষণ, আশ্চর্য এবং দুর্দান্ত শক্তি সহ এক বিলিয়ন মানুষকে শেষ সময়ের পুনরুদ্ধারে উদ্ধার করেছিলেন। ঠিক আছে, দুর্দান্ত শোনায় তবে ঈশ্বরের বাক্য কী বলে?

শিষ্যরা ম্যাথিউ ২৪-তে একটি নির্দিষ্ট প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করেছেন: আপনার আসার চিহ্নটি কী হবে? যিশু প্রথম কথাটি বলেছেন: সাবধান! যে কেউ আপনাকে প্রতারণা করে না! এবং তারপরে যীশু তাড়না, ভূমিকম্প এবং যুদ্ধের গুজব সম্পর্কে কথা বলেছেন। তবে শুধুমাত্র একবার। কিন্তু তিনবার যিশু আধ্যাত্মিক প্রতারণা, ভ্রান্ত খ্রিস্ট এবং মিথ্যা ভাববাদীদের বিষয়ে কথা বলেছেন, দুর্দান্ত চিহ্ন ও আশ্চর্য কাজ দেখিয়ে অনেককে বিভ্রান্ত করেছিলেন। তবে একটি শব্দও নয়, যীশু তাঁর ফিরে আসার আগে এই দুর্দান্ত পুনরুজ্জীবনের কথা বলেছেন।

যীশু জানেন না? নাকি যিশু ভুলে গেছেন? ঠিক আছে, আসুন দেখে নেওয়া যাক প্রেরিতরা কী বলে!

১ তীমথিয় ৪ পল বলেছিলেন যে আত্মা স্পষ্টভাবে বলেছে যে শেষকালে কেউ বিশ্বাস থেকে বিচ্যুত হবে, প্রতারক প্রেত এবং প্রেতের মতবাদগুলিকে মনোযোগ দেবে।

এবং ২ থিষলনীকীয় ভাষায় পৌল বলেছেন: কেউ যেন কোনওভাবেই আপনাকে প্রতারণা না করে, কারণ সেদিনটির অর্থ হ’ল খ্রীষ্টের আগমন, আগত না হওয়া পর্যন্ত আসবে না এবং তারপরে তিনি বলেছিলেন যে এই পতনটি সমস্ত শক্তি, চিহ্ন এবং মিথ্যা বিস্ময় নিয়ে আসে। আসুন থামুন এবং চিন্তা করুন। পল যে হতাশাকে দূরে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার বর্ণনা দেয় তা হ’ল একই সাথে আমরা শেষ সময়ের পুনরুজ্জীবনের বিষয়ে শুনেছিলাম। এমন কি হতে পারে যে পতন দূরে যাওয়ার বিষয়টি একটি দুর্দান্ত পুনরুজ্জীবন হিসাবে ভুল হবে? প্রেরিতরা সকলেই এই পুনরুজ্জীবন সম্পর্কে সম্পূর্ণ অসচেতন বলে মনে হয়।

কিন্তু তারপরে আপনি বলেছেন: বাইবেল উদ্দীপনা সম্পর্কে কথা বলে না! এটি সত্য, তবে যিশু সময়ের শেষে কী ঘটবে সে সম্পর্কে সরাসরি প্রশ্ন পেয়েছেন, তিনি কি এক বিলিয়ন লোককে উদ্ধার করে পুনরুদ্ধারের কথা উল্লেখ করবেন না? আমি অবাক…

তাহলে কী আমাদের দূরে পড়ে যাওয়া থেকে বাঁচায়? পল উত্তরটি দিয়েছেন: সত্যের প্রতি ভালবাসা! যিশু এবং ঈশ্বরের বাক্যকে ভালবাসতে এটি সবার আগে, যদি কেউ বাইরের বাইরে বা এর বিপরীতে প্রচার করে তবে আপনি বলেছেন: এটি ইতিবাচক বলে মনে হতে পারে তবে এটি শব্দ অনুসারে নয়। তবে এর অর্থ এইও যে আপনি পৃথিবীতে এখানে যা সত্য তা ধরে রেখেছেন, আপনি সত্যের প্রতি অবিচল রয়েছেন।

যদি আজ কেউ বলে: আপনি কি জানেন যে এই প্রচারকরা মারাত্মক ভেজানোর সাথে জড়িত ছিলেন, যেখানে আপনি ঈশ্বরের একজন মৃত ব্যক্তির কবরে গিয়ে তাঁর অভিষেক ঘটান, যা বাইবেলে এবং জাদু থেকে কঠোরভাবে নিষিদ্ধ রয়েছে, অনেকে বলে: আমি বিশ্বাস করি না! তারপরে আমি বলি: তবে ইন্টারনেটে অনেক ছবি আছে! তারা বলে: এটি জাল খবর! তারা সফল এবং কিছু লোক এটি নাশকতা করতে চায়! তবে আমি বলি: তবে কীভাবে কোনও ছবি বা বিলি গ্রাহাম বা ডেভিড উইকারসন এটি নিয়ে কোনও গুজব নেই? তারা আরও বেশি সফল এবং সম্প্রতি কার্যকরও ছিল? এবং কীভাবে এই প্রচারকরা স্বীকার করেছেন যে তারা তাদের মধ্যে এটি একটি রসিকতা হিসাবে ব্যবহার করেছিল? অনেকে বলে: আমি এখনও বিশ্বাস করি না এবং প্রায়শই রাগ করে।

অনেক খ্রিস্টান আজ সুইডেনে এ জাতীয় আচরণ করে, তারা সত্যের সন্ধান করে না। আপনার যদি এমন হৃদয় থাকে, সত্যকে ভালোবাসেন না, তবে আপনি প্রতারিত হতে পারেন।

যোহন ১৪:১৫ এবং ২৩ ইন যিশু বলেছেন: আপনি যদি আমাকে ভালবাসেন তবে আমার আজ্ঞা পালন করুন এবং তারপরে যদি কেউ আমাকে ভালবাসে তবে সে আমার বাক্য পালন করবে এবং আমার পিতা তাকে ভালবাসবেন এবং আমরা তাঁর কাছে এসে তাঁর মধ্যে আমাদের বাড়ি করব । যিশুর প্রতি ভালবাসার লক্ষণ হ’ল আমরা তাঁর আদেশগুলি পালন করি এবং তাঁর বাক্যকে মূল্যবান করি। তবে আমরা তা করি কারণ যীশু প্রথমে আমাদের ভালবাসেন, এবং আমরা তাঁকে ভালবাসি, তাই আমরা এটিকে ভালবাসার বাইরে, স্বাধীন ইচ্ছা এবং আনন্দের সাথে করি, মোশির ব্যবস্থার ভারী জোয়াল ও বোঝা হিসাবে নয়। এবং আমরা যখন এটি করি তখন যীশু, পবিত্র আত্মা এবং এমনকি ঈশ্বর পিতা আমাদের ভালবাসেন, আমাদের মধ্যে থাকবেন এবং এটি আশ্চর্যজনক কিছু এবং যখন সমস্যাগুলি আসে, তখন ঈশ্বর স্বয়ং আমাদের রক্ষা করবেন, আমাদের শক্তি দেবেন না, ঝড়ের মধ্যে জ্ঞান, দিকনির্দেশ এবং এমনকি আধ্যাত্মিক আশীর্বাদ।

আর ঝড়ের মধ্যে আমাদের আমাদের স্মরণ রাখা উচিত যে আমাদের শান্তি ও শক্তি কোথায় পাওয়া যায়। যিশু বলেছিলেন “আমি তোমাকে শান্তি দিই, আমার শান্তি আমি তোমাকে দিই। গীতসংহিতা ১১৯: ১৬৫ বলেছেন: যারা আপনার আইনকে ভালবাসে তাদের পক্ষে মহান শান্তি থাকে এবং কোন কিছুই তাদের হোঁচট খাওয়ার কারণ করে না। যখন আমরা যীশুকে ভালবাসি এবং তাঁর আজ্ঞাগুলিকেও ঝড়ের মধ্যে রাখি, তখন তিনি আমাদের বিশ্রামের জায়গা হবেন, এবং আমরা হোঁচট খাবি না।

আমাদের শান্তি কলভরীতে যিশুখ্রিষ্ট আমাদের জন্য যা করেছিলেন তার উপর ভিত্তি করে এবং এই সত্যে যে যীশু ইতিমধ্যে স্বর্গে শাসন ও রাজত্ব করছেন এবং তার সবকিছুই সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। যোহন ১৪:৩০এ যীশু বলেছেন: কারণ এই জগতের শাসক আসছেন, এবং তাঁর আমার মধ্যে কিছুই নেই। সুইডিশ সংস্করণ বলে: আমার বিরুদ্ধে সে কিছুই করতে পারে না। যীশু খ্রীষ্ট হলেন সর্বশক্তিমান ঈশ্বর সর্বশক্তিমান, তিনি যা করতে চান তা থেকে কেউ তাকে থামাতে পারে না এবং তাঁর প্রিয় সন্তান এবং দাসদের স্বর্গে যেদিন ডাকে সেদিনের আগে কেউ তাকে স্পর্শ করতে পারে না। অতএব আমরা বিশ্রামে থাকতে পারি। হ্যাঁ, ভয়ের মুহুর্তগুলি থাকতে পারে তবে আমরা এই শব্দগুলির সাথে নিজেকে স্মরণ করিয়ে দিতে পারি এবং আমাদের বিশ্বাস, শক্তি এবং খ্রিস্টের শান্তি ফিরে পেতে পারি। মনে ভুলে যাবেন না মনে রাখবেন। হ্যাঁ, আমরা মানুষ, আমরা মাঝে মাঝে ভয় অনুভব করতে পারি, তবে ভয়কে আপনার হৃদয় এবং সিদ্ধান্তগুলিকে গাইড করতে দেবেন না।

কিন্তু ঈশ্বর শেষ দিনগুলিতে মানবজাতির জন্য পরীক্ষার সময় দেওয়ার অনুমতি দেবেন। কিন্তু আল্লাহ বিশ্বাসী। প্রকাশিত বাক্য্  ৩:৭ বলেছেন: এই কথাগুলি তিনি বলেছিলেন যিনি পবিত্র, তিনিই সত্য, তিনি যিনি দায়ূদের চাবি আছেন, যিনি উদ্বোধন করেন এবং কেও বন্ধ করেন না এবং বন্ধ করেন এবং কেউ খুলতে পারে না। আমি আপনার কাজ জানি। দেখুন আমি আপনার সামনে একটি উন্মুক্ত দরজা স্থাপন করেছি এবং কেউই এটি বন্ধ করতে পারে না, কারণ আপনার সামান্য শক্তি আছে, আমার বাক্য পালন করেছেন এবং আমার নাম অস্বীকার করেন নি। যেহেতু আপনি অধ্যবসায়ের জন্য আমার আদেশ পালন করেছেন, তাই আমি আপনাকেও পরীক্ষার সময় থেকে রক্ষা করব যা পুরো পৃথিবীতে আসবে।

পৃথিবীতে বিচারের সময় আসছে এবং এই আয়াতগুলি বলে যে আমরা এখানে থাকব না, বা যীশু আমাদের রাখবেন, আমাদের পরীক্ষায় রক্ষা করবেন। ব্যক্তিগতভাবে আমি কিছুটা বিশ্বাস করতে আগ্রহী যে এই সত্যটি সত্য, যিশু আমাদের রাখবেন, যদিও আমি নিশ্চিত নই। তবে আমাদের সামনে একটি উন্মুক্ত দরজা স্থাপন করা হয়েছে, এবং কেউ এটি বন্ধ করতে পারে না, এবং আমাদের কেবল সামান্য শক্তি থাকলেও প্রভুর পক্ষে কোনও সমস্যা নয়, যতক্ষণ আমরা খ্রিস্টের প্রতি বিশ্বস্ত থাকি, তাঁর বাক্য রাখি না, ‘ তাঁর নাম অস্বীকার করুন এবং অধ্যবসায় করুন এবং তার পরে যীশু আমাদের তাঁর শক্তি এবং পবিত্র আত্মার শক্তি দেবেন, এবং এটি এমন একটি উত্স যা প্রচুর।

এবং তারপর প্রতিশ্রুতি আসে। যে জয়লাভ করবে, আমি আমার ঈশ্বরের মন্দিরে একটি স্তম্ভ করব, আমি তাঁর উপরে আমার ঈশ্বরের নাম এবং আমার ঈশ্বরের শহরের নাম, নতুন জেরুজালেম লিখব, যা স্বর্গ থেকে নেমে এসেছিল। আমাদের একটি শিক, আশ্চর্যজনক প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে এবং আমাদের যা করতে হবে তা খ্রীষ্টের কাছে ধরে রাখা। আপনার যা আছে তা ধরে রাখুন, যাতে কেউ আপনার মুকুট নিতে পারে না।

তবে আমাদের কী আসছে তার জন্য প্রস্তুত করা দরকার। আমি সুইডিশ স্পেশাল ফোর্সে ১৫ বছর পরিবেশন করেছি এবং প্রশিক্ষণটি অত্যন্ত কঠিন ছিল। আমরা এক সেকেন্ড না ঘুমিয়ে পুরো রাত ধরে হাঁটতে পারি, ১০০ থেকে ১২০ পাউন্ড ও ৫০-৬০ কেজি ওজনের ব্যাগ বহন করেছিলাম এবং এটি বৃষ্টিপাত, ভেজা, সামান্য খাবার ইত্যাদি হতে পারে। এবং অনেক লোক ভেঙে পড়েছিল এবং ইউনিট ছাড়তে হয়েছিল। আমরা বলেছিলাম: যে প্রস্তুত সে বেঁচে থাকবে। যারা প্রশিক্ষণের শুরুতে বলেছিলেন: আমি শক্তিশালী, এটি আমার পক্ষে কোনও সমস্যা হবে না, আমাকে এত প্রস্তুতি নিতে হবে না, তারা প্রায়শই এটি তৈরি করেনি। যারা বলেছিলেন: আমি বুঝতে পারি যে এই প্রশিক্ষণটি শক্ত হবে তাই আমি শারীরিক ও মানসিকভাবে প্রস্তুত করব, তারা এটি তৈরি করেছিল।

যে খ্রিস্টানরা বিশ্বাস করে যে তারা খুব শক্তিশালী এবং প্রস্তুতি নেয় না, তারা বিশ্বাস করে যে তাদের সমস্যা হবে তবে আপনি যদি প্রার্থনা এবং ঈশ্বরের বাক্য পড়ার প্রস্তুতি নেন তবে আপনি যা আসবেন তাতে দাঁড়াবেন।

তাহলে কী আসতে হবে? আমরা করোনার ভাইরাস নিয়ে মহাক্লেশের সূচনা দেখেছি, তবে আমি বিশ্বাস করি যে আরও আসবে। আমি জানি না কখন, তবে সম্ভবত জিনিসগুলি ইতিমধ্যে সেপ্টেম্বর এবং নভেম্বর মাসে কাঁপতে শুরু করবে, সম্ভবত যুক্তরাষ্ট্রে শুরু হবে। ইউএসএ আরও করোনার মুখোমুখি হতে পারে এবং আরও দাঙ্গা, আরও আগুন এবং প্রায় গৃহযুদ্ধের দিকে এগিয়ে যেতে পারে।

গত তিন বছর প্রভু আমাকে সুইডেনের উপর রাশিয়ার সামরিক হামলার ১০-১৫ স্বপ্ন দেখেছিলেন এবং অন্যান্য খ্রিস্টানরাও একই জিনিস দেখেছেন। অন্যান্য ভবিষ্যদ্বাণীগুলি এটির সত্যতা নিশ্চিত করে এবং বলে যে রাশিয়া এবং চীন বিরুদ্ধে ন্যাটো মধ্যে একটি বিরোধ আসছে, এবং পশ্চিম শিথিল হবে এবং প্রায় পতন হবে। আপনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, গ্রেট ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানের সম্মিলিত সামরিক শক্তির দিকে তাকালে এটি অভাবনীয় বলে মনে হয়। কেবল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাশিয়া ও চীনের একসাথে দুবার সামরিক বাজেট রয়েছে মার্কিন সশস্ত্র বাহিনী রাশিয়ার এবং চীন উভয়ের সম্মিলনের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী, তবুও তারা হারবে কারণ ঈশ্বর তাদের পক্ষে লড়াই করবেন না।

কিন্তু বাইবেল স্পষ্টভাবে আমাদের দেখায় যে সংখ্যাগুলি প্রভুর উপর প্রভাবিত করে না। যদি প্রভু আপনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেন, তবে অনেকগুলি ট্যাঙ্ক এবং যোদ্ধা আপনাকে পরাজিত করতে পারে না, তবে প্রভু যদি আপনার পক্ষে লড়াই করেন তবে একটি ট্যাঙ্ক ব্রিগেড এবং যোদ্ধাদের একটি স্কোয়াড্রন আপনাকে বিজয় দিতে যথেষ্ট।

এটি আমার পক্ষে বলা সহজ নয়, তবে উত্তর আমেরিকা, পশ্চিম ইউরোপ এবং আমার প্রিয় দেশ সুইডেনের উপরেও ঈশ্বরের রায় আসতে চলেছে। আমি সুইডিশ স্পেশাল ফোর্সে ১৫ বছর ধরে আমার দেশের সেবা করেছি এবং আমি এখনও আমার দেশকে ভালবাসি তবে এখন আমি প্রার্থনার জন্য লড়াই করছি। তবে আমরা যদি খ্রিস্টের দিকে ফিরে না যাই, এটি আসবে এবং এটি ইতিমধ্যে নভেম্বরে শুরু হতে পারে। অন্যান্য লোকেরা বছর ২০২২ শুনেছেন, তাই কখন জানি না। তবে আমরা যদি অনুতাপ না করি তবে এটি আসতে পারে। এটি অত্যন্ত, অত্যন্ত দুঃখজনক এবং আমি বিশ্বাস করি যে যীশুও দু: খিত। যীশু সুইডেনকে ভালবাসেন, যীশু পশ্চিম ইউরোপকে, যীশু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ভালবাসেন। যিশুর প্রতি আমাদের ভালবাসা, বিশ্বজুড়ে বিশ্বজগত করার জন্য আমাদের আগ্রহীতা এবং আমাদের ঈশ্বরের ভয়ের কারণে ঈশ্বর এই দেশগুলিকে এত বেশি আশীর্বাদ করেছেন, কিন্তু আজ তা প্রায় সম্পূর্ণরূপে চলে গেছে, কেবল কয়েকজন বিশ্বস্ত বাকী রয়ে গেছে।

তবে এমন একটি শিলা রয়েছে যা শক্তি ও সুরক্ষার জন্য আমরা ধরে রাখতে পারি এবং বিশ্বাস করতে পারি, তিনি হলেন যিশুখ্রিস্ট যিনি বিশ্বস্ত ও সত্য যিশাইয় সুইডিশ সংস্করণে বলেছেন: অতএব প্রভু ঈশ্বর বলেছেন: দেখ, আমি সিয়োনে ভিত্তি স্থাপন করার জন্য একটি পাথর, একটি পরীক্ষিত পাথর, একটি নিশ্চিত ভিত্তি রেখেছিলাম। যে এতে বিশ্বাস করে তার পালাতে হবে না।

আমরা যারা যীশু খ্রীষ্টকে বিশ্বাস করি, তাদের আমাদের পালাতে বা পালাতে হবে না। হ্যাঁ, কখনও কখনও আমাদের তাড়না থেকে পালাতে হবে, পলও তা করেছিল, কিন্তু আমরা এদিক ওদিক ছুটে যাই না, আমাদের তাড়াহুড়ো করে কাজ করতে হবে না, আমরা এখনও খ্রিস্টে বিজয়ী। যীশু ম্যাথিউতে তাদের সম্পর্কে বলেছিলেন যারা রকটিতে তাদের বাড়ি তৈরি করেছিল এবং তা হ’ল খ্রীষ্টের বাক্যে আপনার বিশ্বাস এবং আপনার জীবন গড়ে তোলা। ঝড়, বৃষ্টি এবং বাতাস এসেছিল, তবে এটি ঘরটি সরাতে পারেনি। আমরা খ্রীষ্টে আছি এবং যীশু খ্রীষ্ট আমাদের মধ্যে আছেন। যীশু আমাদের প্রস্তর ভিত্তিতে প্রস্তর প্রস্তর ভিত্তিতে স্থাপন করেছেন এবং সেই পাথর হলেন স্বয়ং যীশু খ্রীষ্ট, প্রভু ঈশ্বর সর্বশক্তিমান।

গীতসংহিতা ৯১ বলেছেন: যে ব্যক্তি সর্বোচ্চের গোপন স্থানে বাস করে সে সর্বশক্তিমানের ছায়ায় থাকবে। আমি সদাপ্রভুকে বলব: তিনিই আমার আশ্রয়স্থল এবং আমার দুর্গ। আমরা সর্বশক্তিমান ঈশ্বরের সেবা করি, এবং আমরা খ্রীষ্টে সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং সুরক্ষিত। শীঘ্রই পৃথিবীতে কেবলমাত্র একটি নিরাপদ জায়গা হবে এবং এটি যীশুর অস্ত্রগুলিতে রয়েছে তবে সেই জায়গাটি নিরাপদ এবং সম্পূর্ণ নিরাপদ থাকবে।

তবে আমি বিশ্বাস করি যে আমাদের পবিত্র আত্মার শক্তি প্রয়োজন, এবং যীশু আমাদের তা দেবেন। প্রেরিতগণ বলেছেন: তবে পবিত্র আত্মা যখন আপনার উপরে আসবেন তখন আপনি শক্তি অর্জন করবেন এবং জেরুশালেমে, সমস্ত জুডিয়া ও সামেরিয়া এবং বিশ্বের শেষ প্রান্তে আপনি আমার সাক্ষী হবেন।

পবিত্র আত্মা আমাদের পথনির্দেশ, শক্তি, ভালবাসা, আনন্দ এবং শান্তি দেয় তবে পবিত্র আত্মা সিংহের মতো আমাদের সাহসী করে তোলে।

এমন একটি চলচ্চিত্র আছে যা আমি পছন্দ করি “বাইবেল”। প্রেরিতের বই থেকে নেওয়া একটি দৃশ্যে, পিটার এবং জন সম্প্রতি সবেমাত্র পবিত্র আত্মায় বাপ্তিস্ম নিয়েছে এবং জন্ম থেকেই খোঁড়া একজন ব্যক্তিকে সুস্থ করে তুলেছে। মহাযাজক তাদেরকে তাঁর কাছে নিয়ে যায়, তাদের হাঁটুতে বসতে বাধ্য করে এবং তাদের বলে: আমি আপনাকে আর সেই নামে কথা বলতে নিষেধ করি! এবং আপনার পিটারের চেহারাটি দেখতে হবে। তিনি হাসতে শুরু করেন, তিনি শান্তভাবে সোজা সামনে দেখছেন, এবং তাঁর মুখটি আনন্দ এবং বিজয় দিয়ে জ্বলজ্বল করছে, এবং সে শান্তভাবে বলে: এটি সত্য। এটি বলা আমাদের কর্তব্য! তখন মহাযাজক ক্ষুব্ধ হয়ে তাদের হুমকি দিলেন: আপনি চুপ থাকবেন বা আপনাকে চুপ করে দেওয়া হবে, এর অর্থ তিনি বলছেন যে তারা তাদের হত্যা করবে। প্রহরীরা তাদের ঘর ছেড়ে বেরিয়ে যায় এবং জন সাহস করে চিৎকার করে বলে: আমরা মৃত্যুর ভয় পাই না!

মনে রেখো, এরা সেই শিষ্য যারা কিছুদিন আগে তাদের প্রিয় গুরুকে অস্বীকার করেছিল, তারা পালিয়ে একটি ঘরে লুকিয়েছিল, মৃত্যুর ভয়ে এবং দেখিয়েছিল যে তারা যীশু খ্রীষ্টের অন্তর্ভুক্ত। কিন্তু যখন পবিত্র আত্মা তাদের উপরে এলেন, তখন তারা পুরোপুরি রূপান্তরিত হয়েছিল। যদি আমরা মনে করি যে আমরা নিজের মধ্যে সাহসী এবং পিটারের মতো বলি: যদিও অন্য প্রত্যেকে আপনাকে অস্বীকার করে, আমি আপনাকে কখনই অস্বীকার করব না, তবে তিনি যেমন করেছিলেন তেমনি আমরাও পড়ে যাব। তবে আমরা যদি যিশুর কাছে প্রার্থনায়, নম্রতা ও দুর্বলতায় উপস্থিত হই এবং আমরা বলি: আমি দুর্বল, আমি সাহসী নই, তবে আমি জানি যে আপনি, যীশু শক্তিশালী এবং আপনি সিংহের মতো সাহসী, কারণ আপনিই যিহূদার সিংহ, সুতরাং দয়া করে যীশু, তোমার পবিত্র আত্মা আমাকে দাও! যীশু, আমাকে আপনার শক্তি দিন, আমাকে আপনার ভালবাসায় পূর্ণ করুন, আমাকে প্রথম প্রেরিত হিসাবে সাহসী করুন এবং আমি বিশ্বাস করি যে তাঁর নাম গৌরব করার জন্য যীশু এটি করবেন।

এবং মনে রাখবেন যে রোমানরা বলে যে এই সমস্ত কিছুর মধ্যে আমরা তাঁর দ্বারা যিনি আমাদের ভালবাসেন তাকে বেশি বিজয়ী। যীশু খ্রীষ্ট ইতিমধ্যে ক্রুশে বিজয় জিতেছেন, এবং তিনি আমাদের সেই বিজয়ের অংশ এবং তাঁর Glশিক গৌরব অনুগ্রহে এবং কেবল অনুগ্রহে দান করেছেন। এবং যিশুখ্রিষ্টের ভালবাসা থেকে আমাদের কিছুই আলাদা করতে পারে না।

এবং বাইবেল ঠিক কীভাবে এটি শেষ হতে চলেছে তা আমাদের জানায়। ১৯ টি সংক্ষেপে সংক্ষেপে বলা হয়েছে: এখন আমি স্বর্গ খোলা দেখলাম এবং দেখলাম একটি সাদা ঘোড়া, আর যিনি তার উপরে বসে ছিলেন তাকে বিশ্বস্ত ও সত্য বলা হয়েছিল। তিনি রক্তে ডুবানো একটি ছিনায় পরেছিলেন এবং তাঁর নামকে Godশ্বরের বাক্য বলা হয়। এবং স্বর্গের সেনাবাহিনী, সাদা লিনেনে পরিহিত, ঘোড়াগুলিতে তাঁর পিছনে পিছনে গেল। তাঁর পোশাক এবং তাঁর উরুতে একটি নাম লেখা আছে: রাজাদের রাজা এবং প্রভুদের প্রভু। এবং তারপরে যীশু তাঁর সমস্ত শত্রুদের এক সেকেন্ডে পরাজিত করবেন। এভাবেই সব শেষ হবে।

অবশেষে, পাকিস্তানে, ভারত এবং অন্যান্য দেশে খ্রিস্টের কাছে আমাদের প্রিয় ভাই রয়েছে যারা খ্রিস্টের জন্য প্রাণ দিতে হবে এবং আমাদের ক্ষেত্রেও তা ঘটতে পারে। আমাদের অবশ্যই সচেতন হতে হবে। কিন্তু স্বর্গে কেউ খ্রীষ্টকে বলবে না: যীশু, আপনি যখন আমার বয়স চল্লিশ বছর তখন পৃথিবীতে জীবন আমাকে ছেড়ে দিয়েছিলেন কেন? আপনি আমাকে আরও কমপক্ষে ২০ বছর দিতে পারতেন! না, আপনি ঈশ্বরের প্রশংসা করবেন এবং বলবেন: কালভেরিতে আপনি আমার জন্য যা করেছিলেন তার জন্য আপনাকে যীশুকে ধন্যবাদ জানাই এবং আমাকে এই দুর্দান্ত জায়গায় নিয়ে আসার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ জানাই! আমি আর কখনও পৃথিবীতে ফিরে যেতে চাই না!

এবং আপনি করতে হবে না! স্বর্গে আপনি চিরকাল থাকবেন! আমরা যখন পৃথিবীতে এখানে পরীক্ষার এবং যন্ত্রণার মুখোমুখি হই তখন আমাদের সেই দৃষ্টিভঙ্গি থাকা দরকার। মনে রাখবেন যে স্বর্গের একটি অনন্তকাল আপনার জন্য অপেক্ষা করছে এবং যীশু খ্রিস্ট শীঘ্রই গৌরব ও শক্তিতে ফিরে আসবেন এবং আপনি তাঁর বিজয় এবং গৌরব চিরকাল ভাগ করবেন। সেই আশা আপনাকে শক্তিশালী করে তুলবে এবং রোমীয় ৫ বলে: এখন আশা হতাশ হয় না, কারণ ঈশ্বরের প্রতি ভালবাসা আমাদের হৃদয়ে পবিত্র আত্মার দ্বারা দেওয়া হয়েছিল যা আমাদের দেওয়া হয়েছিল  আমেন।

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »

Pin It on Pinterest

Share This